সংবাদ সম্মেলনে ইশতেহার প্রকাশ করলেন গনফ্রন্ট মনোনীত মাছ মার্কার ঢাকা দক্ষিনের মেয়র প্রার্থী আব্দুস সামাদ সুজন

আজ ২৮ জানুয়ারি বিকাল ৪ টায় ২২/১ তোপখানা রোডস্হ পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ঢাকা দক্ষিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে গনফ্রন্ট মনোনীত প্রার্থী আব্দুস সামাদ সুজন আজ ২১ দফা নির্বাচনী ইশতেহার প্রকাশ করেন।
 
সংবাদ সম্মেলনে আব্দুস সামাদ সুজন বলেন যানজটমুক্ত নিরাপদ মাদকমুক্ত ঢাকা গড়ে তোলার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে বলেন, আমার নেতৃত্বে গণমানুষের প্রতিনিধি নিয়ে নীতিনিষ্ঠ রাজনীতিবিদ দিয়ে কমিটি করা হবে।
 
সামাদ বলেন, রাজধানী ঢাকা দেশের প্রাণকেন্দ্র শহর। দেশের রাজনীতি ও অর্থনীতির পরিচালনার কেন্দ্র। ঢাকা সিটি কর্পোরেশন কে দুর্নীতির আখড়া করা হয়েছে। এখন ঢাকার কথা বললেই মানুষের কল্পনায় ভাসে অবাসযোগ্য, যানজট, ধূলা ও দূষিত বায়ু, মাত্রাতিরিক্ত শব্দ, অপরিকল্পিত স্থাপনা, চাঁদাবাজ মাদক সন্ত্রাস ধর্ষনের সুতিকাগারে পরিণত হয়েছে।
 
তিনি বলেন, দুই বৃহৎ গোষ্ঠীর প্রতিনিধিরাই নগরের মেয়রের দায়িত্বে ছিলেন। তাই সাধারণ গরিব-মেহনতী-মধ্যবিত্ত মানুষকে বঞ্চিত করে তারা শাসক গোষ্ঠীর নিরবিচ্ছিন্ন সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতের বিষয়টিকেই প্রাধান্য দিয়েছেন। ঢাকায় খোলা আকাশের নীচে অসংখ্য মানুষ রাএিযাপন করে আজ ভিক্ষুকের শহরে পরিনত করা হয়েছে ঢাকাকে। মেয়রগন ক্ষমতার অপব্যবহার করে অর্থ সম্পদ তৈরি করেছে নাগরিকদের কোন খোঁজ খবর রাখেন নাই। নির্মম বাস্তবতা ডেংগু মশা যানজট বায়ুদূষণ আর অবাসযোগ্য শহরে পরিনত করা হয়েছে।
 
আব্দুস সামাদ সুজন তার নির্বাচনী ইশতেহারে ঢাকা মহানগরীকে চাঁদাবাজ মুক্ট সন্ত্রাসী মুক্ত আন্তর্জাতিক মানের শহরে পরিনত করতে যাকার দরকার সব করা হবে গ্যাস-পানি-বিদ্যুৎ এর সমস্যা সমাধান, বিষমুক্ত খাবার ও ভেজালমুক্ত বাজার নিশ্চিত করা দ্রব্যমুল্য নিয়ন্ত্রণ , সবার নিরাপত্তা বিধান, চিকিৎসেবা নিশ্চিত করা, হকার রিক্সা চালকদের পুনর্বাসন
টোকাই পথশিশুদের ও নিম্ন বিওদের শিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আনা প্রতিবন্ধীদের জন্য আলাদা সুযোগ-সুবিধা প্রদান, খেলাধুলা, দুর্নীতি দূর ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা। হকার বস্তিবাসী ভিক্ষুকদের পুণর্বাসন করার কথা বলেন
 
এ সময় উপস্হিত ছিলেন গনতান্ত্রিক বাম ঐক্যর সমন্বয়ক ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির চেয়্যারমা বীর মুক্তিযোদ্ধা কমরেড হারুন চৌধুরী নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য সমাজতান্ত্রিক মজদুর পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সামছুল হক চৌধুরী এসডিপির আহ্বায়ক কমরেড আবুল কালাম আজাদ কমিউনিস্ট পার্টি(মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা বিজ্ঞানী সামছুল হক সরকার প্রমুখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
 
ইশতেহারে বলা হয় সারা বছর ধরে ডেংগু মশা ও নগর পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান জোরদার করা হবে।
 
তিনি নগরীতে নিরাপদ যানজটমুক্ত বসববাস কর্মসংস্থান ও নতুন উদ্যোক্তা তৈরির কর্মসূচি গ্রহণ, নগরের সব নিম্নআয়ের মানুষের জন্য কর্মসংস্থান ও রেশনিংয়ের ব্যবস্থা করার অঙ্গীকার করে বলেন কোন চাঁদাবাজ সন্ত্রাসী মাদক ব্যবসায়ী ইভটিজার ঢাকায় থাকবে না
 
তিনি যানজট নিরসনে সকল ব্যাক্তিগত গাড়ী চলাচল বন্দ করা হবে এবং গনপরিবহন চালুর কথা বলেন। জলজট নিরসনে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণের কথা বলেন। ঢাকার সব খাল অবৈধ দখল থেকে উদ্ধার করে ব্যবহারোপযোগী করা হবে কোন দখল বাজ কে অবৈধ ভাবে খাল জমি জায়গা দখল করে ব্যবহারের সুযোগ দেওয়া হবে না ও পরিচ্ছন্ন কর্মীদের সংখ্যা ও তাদের সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করার কথা বলেন।