রাজশাহীতে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অর্থ হাতিয়ে নেয়া এক প্রতারক গ্রেফতার


মোঃজামাল উদ্দিন কালাচাঁন : ইমু একাউন্টের ম্যাসেজিং এর মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে ফাঁদে ফেলে অর্থ হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে পবা থানা পুলিশ গতকাল রোববার এক প্রতারককে গ্রেফতার করেছেন। প্রতারকের নাম সাইফুল খান শামীম অরফে জুম্মন খান(৪০) পিতা- আজিজুল খাঁন অরফে আজগর খান, বাড়ি বজরুসার, থানা-কালকিনি, জেলা-মাদারীপুর, বর্তমানে তিনি ঢাকা মহানগরের মুগদাপাড়ায় ১নং গলির আসমার বাড়ীতে ভাড়াটিয়া।

তিনি একজন আমেরিকা প্রবাসী বলে নিজেকে দাবী করেন এবং বাংলাদেশে স্থায়ীভাবে বসবাস করবে বলে রাজশাহীর পবা থানার এক মহিলার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন। পরবর্তীতে তিনি তাকে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক গত জুন মাসে বিয়ে করেন। প্রেমের সম্পর্ক থাকাকালীন ও বিবাহ পরবর্তী সময়ে আসামী সাইফুল খান এই স্ত্রীর নিকট থেকে ব্যবসায়িক সমস্যার কথা বলে এস.এ পরিবহনের মাধ্যমে বিভিন্ন সময়ে প্রতারনা করে সর্বমোট ১১,৩৯,৫০০/- হাতিয়ে নিয়েছে বলে ভিকটিম গত সেপ্টেম্বর মাসে পবা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।
অভিযোগের পরেই পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক প্রতারককে আটক করার নির্দেশ দেন। তঁার নির্দেশে পবা থানার এস আই শরিফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে আসামীকে গ্রেফতারে অভিযান শুরু করেন। গোপন সংবাদের মাধ্যমে ঐ প্রতারকের অবস্থান জানতে পারেন যে, আসামী ঢাকার মতিঝিল থানা এলাকায় অবস্থান করছে। শরিফুল ইসলামের নেতৃত্বে পবা থানা পুলিশ টিম মতিঝিল থানা পুলিশের সহায়তায় ২৭ তারিখ রোববার রাতে মতিঝিল থানার ফকিরাপুল এলাকা হতে প্রতারক সাইফুল খান শামীম অরফে জুম্মন খানকে গ্রেফতার করেন।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামী, ঘটনার সাথে জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকার করেছেন বলে জানান পবা থানা পুলিশ। পবা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ গোলাম মোস্তফা জানান চলতি বছরের সেপ্টেম্বর মাসে মামলা করেন ভুক্তভোগি। তার মামলার প্রেক্ষিতে রোববার ঢাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আসামীকে আজ জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।