মিয়ানমারে গণহত্যা ও সহিংসতা বন্ধে বাংলাদেশের পদক্ষেপ বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে- লায়ন সালাম মাহমুদ


শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হক এর কৃষক শ্রমিক পার্টি- কেএসপি’র সভাপতি লায়ন সালাম মাহমুদ এর নেতৃত্বাধীন ৩৫টি রাজনৈতিক দলের সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত যুক্তফ্রন্ট জোটের চেয়ারম্যান লায়ন সালাম মাহমুদ বলেছেন- মায়ানমারে গণহত্যা বন্ধে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরী। মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যে নিরাপরাধ, নিরস্ত্র নারী-পুরুষ ও শিশুদের বর্বর ও পৈশাচিক কায়দায় মায়ানমার সেনাবাহিনী নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞ চালাচ্ছে। এই সহিংসতা গণহত্যা বন্ধে অনতিবিলম্বে বিশ্ব নেতৃবৃন্দের ঐক্যবদ্ধভাবে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা জরুরী।

জাতিসংঘ, ওআইসিসহ মানবাধিকার সংগঠনগুলো দ্রুত এ বিষয়ে মায়ানমার সরকারের উপর চাপ প্রয়োগ করবে বলে তিনি প্রত্যাশা করেন। বাংলাদেশে মায়ানমার থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বসবাসের অনুকুল পরিবেশ নিশ্চিত এবং তাদেরকে নিজ দেশে দ্রুত ফেরত নেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি তিনি জোর দাবি জানান।

মিয়ানমারে চলমান গণহত্যা ও সহিংসতা বন্ধে বাংলাদেশের পদক্ষেপ বিশ্বে প্রশংসিত হচ্ছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা প্রাণভয়ে পালিয়ে আসা ৪ লক্ষাধিক রোহিঙ্গাদের আশ্রয় ও তাদের অন্ন, চিকিৎসা, বাসস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। এই সংকটের স্থায়ী সমাধানের লক্ষ্যে শেখ হাসিনা বিশ্বব্যাপী কুটনৈতিক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। ইতিমধ্যে জাতিসংঘসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান এবং দেশ মিয়ানমারের গণহত্যা বন্ধের দাবি ও এই ঘটনাকে চরম মানবাধিকার লংঘন বলে উল্লেখ করেছেন। তিনি বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের দ্রুত মায়ানমারে ফেরত নেয়ার জন্য বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি মায়ানমার সরকারকে চাপ প্রয়োগের আহ্বান জানান।

যুক্তফ্রন্ট জোটের শরীক ৩৫টি রাজনৈতিক দল- কৃষক শ্রমিক পার্টি- কেএসপি, বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক পার্টি- বিজিপি, বাংলাদেশ সংস্কৃতিক উন্নয়ন পার্টি, নতুনধারা গণতান্ত্রিক পার্টি- এনজিপি, বাংলাদেশ দেশপ্রেমিক পার্টি- বিডিপি, বাংলাদেশ জনকল্যাণ পর্যবেক্ষক ফ্রন্ট, বাঙালি জনতার পার্টি- বিজেপি, জাতীয় গণতান্ত্রিক স্বাধীন পার্টি, বিশ্ব শান্তি মুক্তির গণপরিষদ, জাতীয় জনসেবা পার্টি- জাজপা, জাতীয় গণতান্ত্রিক মুক্তি পার্টি, সম্মিলিত নাগরিক মুক্তি লীগ, বঙ্গপার্টি, কৃষক শ্রমিক ওলামা পার্টি, প্রগ্রেসিভ পার্টি অব বাংলাদেশ, বাংলাদেশ পঞ্চায়েত পার্টি- বিপিপি, বাংলাদেশ ইসলামিক জনতা পার্টি, তৃণমুল সাম্যবাদী দল, আঞ্জুমানে তরিকতে সাজ্জাদী, বাংলাদেশ নাগরিক পার্টি, বাংলাদেশ সম্মিলিত নাগরিক আন্দোলন, বাংলাদেশ মানবাধিকার পার্টি, ন্যায্য পার্টি বাংলাদেশ, বাংলাদেশ জাতীয় সুন্নী ওলামা মাশায়েখ পরিষদ, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট পার্টি- বিডিপি, বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক মুক্তি আন্দোলন, বাংলাদেশ জাতীয় কংগ্রেস- বাজাক, দেশপ্রেমিক ইসলামী পার্টি, জাতীয় গণআজাদী পার্টি, তৃণমুল জনতা পার্টি, জাতীয় সাংস্কৃতিক কল্যাণ পার্টি, বাংলাদেশ জাতীয় আজাদী পার্টি, ন্যাশনাল লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, সম্মিলিত আহলে তরিকত বাংলাদেশ, জাতীয় ওলামা মাশায়েখ আন্দোলন।