মায়ানমারে মানবিক বিপর্যয় -বজলার রহমান রাজা

সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধ ধর্মীয় রাষ্ট্র মায়ানমারের এই মানবিক বিপর্যয় স্বয়ং কি বৌদ্ধ চেয়েছিলেন যার মুল মন্ত্র ছিল অহিংসা পরম ধর্ম-আর জীব হত্যা মহাপাপ। আজ কেন ? তার অনুসারীরা মুসলিম হত্যা চালাচ্ছে। তবে সেখানে নারী, শিশুরাও রেহাই পাচ্ছেনা। আজ দু:খ হয় শান্তিতে নোবেল পুরুস্কার প্রাপ্ত নেত্রী অং সান সুচি রাষ্ট্র ক্ষমতায় সেই দেশে যদি এত বড় মানবিক বিপর্যয় হয়। তাহলে ওনার কিশের শান্তিতে নোবেল পুরুস্কার। তার দেশের এই অবস্থা আজ বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় বইছে। সেইসঙ্গে তার হচ্ছে রাজনৈতিক মৃত্যু। এখন আমার প্রশ্ন হলো এত বড় হত্যাযজ্ঞ চালানোর পর নোবেলটি তিনি নোবেল কর্তৃপক্ষকে ফেরৎ দেবেন কি ? কারণ আপনার শান্তিতে নোবেল পাওয়ার কথা শুনলে ঘৃণা লাগে আপনাকে ঘৃণা করার আর কোন জায়গা নেই। আপনি একটা অমানুষ। দীর্ঘদিন গৃহবন্দী ছিলেন আপনার প্রতি বিশ্বের জনগণের আশা ছিল আপনি মুক্তি পাবেন, মায়ানমারের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় বসবেন, আপনার দ্বারা আপনার দেশটির আত্মসামাজিক উন্নয়ন ঘটবে। কিন্তু আপনি প্রমাণ করলেন আপনার কোন রাজনৈতিক প্রজ্ঞা নেই। রাষ্ট্র পরিচালনায় নেই কোন দক্ষতা, আপনার ভিতর নেই কোন মানবিক গুনাবলি। আপনার দেশে জন্ম লাভ করা মানুষদের প্রতি আপনার দেশের সৈন্যরা এত নিষ্ঠুর হতে পারে ? আসলে ওরা শয়তান, ওরা নির্মম, নির্দয়, ওরা জাহান্নামের কীট। ওরা যেমন মানবিক বিপর্যয় ঘটাচ্ছে তেমনি বৌদ্ধ ধর্মের প্রতি মানুষের যে ভালবাসা ছিল। বৌদ্ধদের প্রতি যে আত্মবিশ্বাস ছিল। তার বানী ধর্মের প্রতি যে অনুরাগ ছিল, এই ঘটনায় তা মানুষের মন থেকে একেবারে মুছে গেল। মায়ানমারের প্রতি আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি করে এই হত্যাকান্ডের সহিত যারা জড়িত তাদের আন্তর্জাতিক আদালতে বিচার হওয়া দরকার। বিশ্বের যারা মোড়ল তাদেরকে বলি আজ যদি একজন ইসরাইল মারা যেত তাহলে আমেরিকাতে সপ্ত নৌবহর আনতো। কিন্তু মায়ানমারের ব্যাপারে কই মোড়লদের কোন মাথাব্যথা নেই। এমনকি পার্শ্ববর্তী দেশ চীন ও নিশ্চুপ। এর কারণ কি ? তবে একথা বলাযায় অন্যের বিপদে আনন্দ পায় কাপুরুষরা। আর যারা বীর তারা উদ্ধারে ঝাপিয়ে পরে। আপনারা যারা বীর সেজে বসে আছেন আসলে তারা স্বার্থান্বেষী মহল। আপনারা আপনাদের স্বার্থ ছাড়া কিছুই বোঝেন না। আপনারা অমানুষ, আপনারা ভন্ড, আপনাদের কথা শোনাই পাপ। কারণ আপনারা মুসলমানদেরকে ভয় পান তাই সারা বিশ্বে মুসলিম নিধন আপনাদের রাজনৈতিক কমিটমেন্ট। তাই বলি War is not peace, Stop it killing Muslims.

বজলার রহমান রাজা
নির্বাহী পরিচালক
বঙ্গবন্ধু সাহিত্য কেন্দ্র, পলাশবাড়ী, গাইবান্ধা।
মোবাইলঃ ০১৭১৬১৩৭২৩৬